ইফতারির প্যাকেট হাতে রোজাদারদের খোঁজে ‘মানবসেবায় আমরা’

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মোরশেদ-উল-আলম,চিরিরবন্দর(দিনাজপুর)প্রতিনিধি: নীরব প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের প্রভাবে পুরোদেশ কার্যত লকডাউন। এর প্রভাবে থমকে গেছে অর্থনীতির চাকা। কর্মহীন হয়ে পড়েছেন লাখো মানুষ। দৈনতা আর চরম দুর্দশায় দিন কাটছে নিম্নআয়ের মানুষের। করোনাভাইরাসের প্রকোপের কারণে চিরিরবন্দর ও খানসামা উপজেলার হাজার হাজার মানুষ কমর্হীন হয়ে পড়েছে। এতে দরিদ্র পরিবারে দেখা দিয়েছে খাদ্যাভাব। ‘খেটে-খাওয়া রোজাদার-পথেই পাবে ইফতার’ এ প্রতিপাদ্য নিয়ে এক ব্যতিক্রমধর্মী উদ্যোগ নিয়েছে স্বেচ্ছাসেবী, অরাজনৈতিক ও অলাভজনক সামাজিক সংগঠন ‘মানবসেবায় আমরা’র সদস্যরা। এরই ধারাবাহিকতায় গত ১৯ মে মঙ্গলবার বিকেলে চিরিরবন্দর উপজেলার রাণীরবন্দর বাসস্ট্যান্ডসহ বিভিন্ন সড়কে এবং তেঁতুলিয়া ইউনিয়নের ভুষিরবন্দরে তারা অভাবী ভ্রাম্যমাণ রিকশাভ্যান চালক, গরীব, দুস্থ, পথশিশু, সুবিধাবঞ্চিত এবং ছিন্নমূল রোজাদার দু’শতাধিক মানুষের হাতে মানসম্মত ইফতারের প্যাকেট তুলে দেন।
রোজাদারের জন্য ইফতারি বিতরণ করেন ‘মানবসেবায় আমরা’র আহবায়ক মোহাম্মদ আলী সবুজ এবং অন্যান্যের মধ্যে মো. মহসিন আলী, মো. হাবিবুর রহমান, আব্দুল্লাহ আল হাবিব, নওশাদ আহমেদ, আব্দুল খালেক, এস কে নিরব, ফরিদুল ইসলাম, সোয়ান, আল-আমিন, সাজেদুর রহমান শাকিলসহ আরও অনেকে উপস্থিত ছিলেন।
এ সংগঠনে কিছু শিক্ষার্থী জড়িত থেকে নানা ধরণের মানবসেবামূলক কাজ করে আসছেন। এরই মধ্যে পবিত্র রমজান মাসে তারা সমাজের অসহায় দরিদ্র্য রোজাদার মানুষের মাঝে ইফতারি বিতরণ কর্মসূচি হাতে নিয়েছেন। এছাড়াও পবিত্র রমজান মাসে এ সংগঠনের সদস্যরা সমাজের অসহায়, দরিদ্র্য-কর্মহীন মানুষের মধ্যে উপহার স্বরুপ খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন।
সংগঠনটির সমন্বয়ক মোহাম্মদ আলী সবুজ বলেন, সমাজের সুবিধাবঞ্চিত মানুষদের সেবা করাই আমাদের কাজ। তারপরও করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে খাদ্য সংকটে পড়েছেন দিনমজুর ও নিম্নআয়ের মানুষরা। তাই রোজা উপলক্ষ্যে ওইসব দারিদ্র্য মানুষের মাঝে রমজান মাসের শেষদিন পর্যন্ত ইফতারি বিতরণ কার্যক্রম চলবে ইনশাআল্লাহ্। উল্লেখ্য এ সংগঠনটি প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে বিভিন্ন ধরণের সমাজসেবামূলক কর্মকান্ড অব্যাহত রেখেছে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*