চিরিরবন্দরে মন্দিরের তালা ভেঙে প্রতিমার সামনে রাখা শালগ্রাম ৪টি শীলা চুরি

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মোরশেদ উল আলম, চিরিরবন্দর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ চিরিরবন্দরে মন্দিরের তালা ভেঙে প্রতিমার সামনে রাখা শালগ্রাম শীলা চুরির ঘটনা ঘটেছে। উপজেলার ভিয়াইল ইউনিয়নের নানিয়াটিকর গ্রামের সত্যেন্দ্রনাথ ব্যাণার্জীর পারিবারিক মন্দিরে গত ২৫ জুলাই রবিবার দিবাগত রাতে এ ঘটনা ঘটে।
পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ২৬ জুলাই সোমবার সকালে ঘুম থেকে উঠে সত্যেন্দ্রনাথ ব্যাণার্জীর পুত্রবধু মন্দিরের ফটকের তালা ভাঙা দেখতে পান। এ সময় তিনি বিষয়টি পরিবারের লোকজনকে জানান। পরে পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা মন্দিরের ভেতরে ঢুকে প্রতিমার সামনে রাখা কালো রঙের/কৃষ্ণবর্ণের বিভিন্ন আকৃতির নারায়ণ শীলা চারটি, শীবলিঙ্গ তিন চার ইঞ্চি উচ্চতা বিশিষ্ট চারটি, রুপোর তৈরী তিন ভরি ওজনের ছাতা একটি, পূজার কাজে ব্যবহৃত বেশ কিছু বাসন, কাসার তৈরী থালা/গ্লাস আনুমানিক চার-পাঁচ কেজি, পিতলের থালা/গ্লাস দুই কেজি, তামার তৈজসপত্র এক কেজি খোয়া যাওয়ার ব্যাপারে নিশ্চিত হন। পরে বিষয়টি তাঁরা চিরিরবন্দর থানার পুলিশকে অবহিত করেন।

সত্যেন্দ্রনাথ ব্যাণার্জীর পুত্র সুভাষ চন্দ্র ব্যাণার্জী জানান, এ দিন সকালে ঘুম থেকে উঠে মন্দিরে গিয়ে দেখেন, দরজার তালা ভাঙা। ভিতরে সমস্ত জিনিসপত্র লন্ডভন্ড হয়ে রয়েছে। চক্রবর্তী পরিবারের অভিযোগ, কালো রঙের শালগ্রাম শীলাগুলোকে কষ্টিপাথর মনে করে চুরি করেছে দুর্বৃত্তরা কিন্ত সেগুলো আদৌ কষ্টিপাথর কিনা তারা জানেনা পাকিস্তান আমল থেকেই এই শীলাগুলো তারা প্রতিমার সামনে রেখে পুজা করে আসছে। পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, এই সবের মধ্যে একটি শীবলিঙ্গ সাদা বর্ণের হওয়ায় সেটি রেখে গিয়েছে চোরেরা।
চিরিরবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুব্রত কুমার সরকার বলেন “মন্দিরে চুরির খবর পাওয়ার পর ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে”।

 

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*