টিকায় কমছে করোনার জটিলতা ও মৃত্যুঝুঁকি

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

পজিটিভ বিডি নিউজ ২৪ ডট কম: অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও করোনাভাইরাসের টিকা বিভিন্ন জটিলতা ও মৃত্যুর ঝুঁকি কমাচ্ছে। টিকা নেওয়ার পরও যেকেউ করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হতে পারেন। কিন্তু সে ক্ষেত্রে তাঁদের ঝুঁকি টিকা না নেওয়া ব্যক্তিদের তুলনায় কম। সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) এক গবেষণায় এ চিত্র পাওয়া গেছে। গতকাল রোববার রাতে ওই গবেষণা প্রকাশিত হয়েছে।

আইইডিসিআরের গবেষণায় দেখা গেছে, দুই ডোজ টিকা নিয়ে আক্রান্ত হয়েছেন—এমন রোগীদের তুলনায় টিকা না নেওয়া রোগীদের মধ্যে শ্বাসপ্রশ্বাসজনিত জটিলতা বেশি। টিকা না নেওয়া ব্যক্তিদের হাসপাতালে ভর্তির হার এবং মৃত্যুঝুঁকিও বেশি। গত মে ও জুন মাসে এ গবেষণা পরিচালনা করে আইইডিসিআর।

প্রতিষ্ঠানটি জানায়, দ্বৈবচয়নের ভিত্তিতে করোনায় সংক্রমিত ব্যক্তিদের জাতীয় তালিকা থেকে গবেষণার নমুনা বাছাই করা হয়। এর মধ্যে ৫৯২ জন আক্রান্ত রোগী ছিলেন, যাঁরা করোনার টিকার একটি ডোজও নেননি। আর ৩০৬ জন ছিলেন, যাঁরা পূর্ণ ডোজ টিকা নেওয়ার অন্তত ১৪ দিন পর করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্ত ব্যক্তিদের রোগ শনাক্তের কমপক্ষে ১৪ দিন অতিবাহিত হওয়ার পর তাঁদের সাক্ষাৎকার নেওয়া হয়।

গবেষণায় দেখা গেছে, করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন কিন্তু টিকা নেননি, এমন ব্যক্তিদের ৩ শতাংশের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) ভর্তি হওয়ার প্রয়োজন হয়েছিল। আর পূর্ণ ডোজ টিকা নেওয়ার পর আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে আইসিইউতে ভর্তি হতে হয়েছিল ১ শতাংশের কম রোগীকে। টিকা না নেওয়া রোগীদের ৩ শতাংশ মৃত্যুবরণ করেছেন, আর টিকা নেওয়া রোগীদের মধ্যে মৃত্যু হয়েছিল শূন্য দশমিক ৩ শতাংশের।

গবেষণায় দেখা গেছে, টিকা না নেওয়া আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে শ্বাসপ্রশ্বাসজনিত জটিলতার হার ছিল ১১ শতাংশ। দুই ডোজ টিকা নেওয়া ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে এই হার ছিল ৪ শতাংশ। অসংক্রামক রোগে আক্রান্ত টিকা না নেওয়া রোগীদের মধ্যে শ্বাসপ্রশ্বাসের জটিলতার হার দুই ডোজ টিকা নেওয়ার পর আক্রান্ত ব্যক্তিদের তুলনায় ১০ শতাংশ বেশি।

করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে যাঁদের উপসর্গ জটিল, তাঁদেরই হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়। আইইডিসিআরের গবেষণায় দেখা গেছে, টিকা না নেওয়া রোগীদের মধ্যে হাসপাতালে ভর্তির হার ২৩ শতাংশ। আর দুই ডোজ টিকা নিয়ে আক্রান্ত রোগীদের ক্ষেত্রে এই হার ছিল ৭ শতাংশ।

করোনায় আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে যাঁরা অন্যান্য অসংক্রামক রোগে আক্রান্ত এবং টিকা নেননি, তাঁদের ক্ষেত্রে হাসপাতালে ভর্তির হার ৩২ শতাংশ। আর দুই ডোজ টিকা নেওয়া ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে এই হার ছিল ১০ শতাংশ।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*