ট্রাম্পের ছেলের শরীর থেকে ‘২ সেকেন্ডেই’ উধাও করোনা!

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

পজিটিভ বিডি নিউজ ২৪ ডটকম  : বাবা ডোনাল্ড ট্রাম্পের মতোই চমক দেখাল তার ছেলে ব্যারন ট্রাম্প। মার্কিন প্রেসিডেন্টের মতো নাটকীয়ভাবেই করোনাভাইরাস থেকে মুক্ত হয়েছে ১৪ বছরের ব্যারন।

সম্প্রতি প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন ব্যারনের বাবা ডোনাল্ড ট্রাম্প ও তার মা মেলানিয়া ট্রাম্প। আক্রান্ত হওয়ার পর ওয়াল্টার রিড সামরিক হাসপাতালে ভর্তি হন ট্রাম্প। কিন্তু চমক দেখিয়ে মাত্র ৭২ ঘণ্টা পরই হোয়াইট হাউসে ফেরেন তিনি। এরপরও করোনামুক্ত হন ট্রাম্প।

বাবার মতোই চমক দেখাল তার ছেলে ছেলে ব্যারন ট্রাম্প। মা-বাবার মতো করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিল সে। তবে এখন সে করোনামুক্ত। ডোনাল্ড ট্রাম্পের স্ত্রী মার্কিন ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প এ তথ্য জানান।

সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, ছেলে ব্যারন ট্রাম্প যে করোনায় আক্রান্ত হতে পারে বলে ভয় পাচ্ছিলেন মেলানিয়া, শেষ পর্যন্ত তার ভয়টাই সত্য হয়। তবে মেলানিয়া বলেন, “সৌভাগ্যবশত সে (ব্যারন ট্রাম্প) বেশ শক্তপোক্ত কিশোর। ওর মধ্যে করোনা সংক্রমণের কোনও উপসর্গ ছিল না।”

করোনা থেকে সেরে ওঠার পর যুক্তরাষ্ট্রের মধ্য-পশ্চিমাঞ্চলীয় আইওয়া অঙ্গরাজ্যে এক নির্বাচনী র‍্যালিতে গিয়ে ট্রাম্প বলেন, “খুব অল্প সময়ের জন্য ওর (ব্যারন) এটা (করোনাভাইরাস) হয়েছিল।”

ট্রাম্প আরও বলেন, “আমার তো মনে হয় না সে (ব্যারন) বুঝতেও পেরেছে যে সে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। কারণ, ওদের (ব্যারনের মতো কিশোররা) বয়স কম, আর তাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা শক্তিশালী হওযায় তারা করোনাকে হারিয়ে দিতে পারে।”

আইওয়া অঙ্গরাজ্যে গণসংযোগকালে ট্রাম্প জমায়েতের উদ্দেশে বলেন, “ব্যারনের করোনা টেস্ট পজিটিভ এসেছে। এরপর বলতে গেলে দুই সেকেন্ডের মধ্যেই দেখা গেল ব্যারন ঠিক আছে। ওর করোনা পরীক্ষার ফল নেগেটিভ এসেছে।”

এমন ঘটনা হয়েই থাকে উল্লেখ করে ট্রাম্প আরও বলেন, “মানুষের এটা (করোনাভাইরাস) হয় এবং চলেও যায়। শিশুদের আবার স্কুলে পাঠান।”

ডোনাল্ড ট্রাম্প বরাবরই যত দ্রুত সম্ভব স্কুলগুলো খুলে দেওয়ার কথা বলে আসছেন। কিন্তু ট্রাম্পের এমন মতামতের বিরোধিতা করে আসছে যুক্তরাষ্ট্রের শিক্ষকদের ইউনিয়ন। তাদের আশঙ্কা, শিক্ষার্থীদের থেকে শিক্ষকরাও করোনায় আক্রান্ত হতে পারেন। এবার ছেলে ব্যারনের করোনা থেকে সেরে ওঠাকে নিজের মতামতের পক্ষে যুক্তি হিসেবে দেখাচ্ছেন ট্রাম্প।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*