দিনাজপুরের বীরগঞ্জে ত্রানের দাবিতে আদিবাসিরা মহাসড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করে

SAMSUNG CAMERA PICTURES
Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এন.আই.মিলন, বীরগঞ্জ (দিনাজপুর) থেকে :  দিনাজপুরের বীরগঞ্জে করোনাভাইরাসের প্রাদূর্ভাবে কর্মহীন হয়ে পড়া প্রায় তিন শতাধিক ক্ষুদ্র নৃ-জনগোষ্ঠী আদিবাসীরা ত্রানের দাবিতে উপজেলার প্রধান ফটক সংলগ্ন মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ কর্মসুচি পালন করছেন ।

২১ এপ্রিল মঙ্গলবার সকাল ১১ টার থেকে দূর্যোগপূর্ণ আবহাওয়াতেও ত্রাণের দাবীতে বীরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ের সামনের মহাসড়কে পৌর শহরের ৯ নং ওয়ার্ডের ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর অসহায় দরিদ্র আদিবাসী সহ প্রায় তিন শতাধিক এলাকাবাসী করোনা ভাইরাসের প্রাদূর্ভাবে কর্মহীন হয়ে পড়ায় ত্রানের দাবিতে মহাসড়কে অবস্থান নিয়ে অবরোধ কমৃসুচি বিক্ষোভ করেন।

অবরোধ ও বিক্ষোভে অংশগ্রহনকরী আদিবাসীরা সুমি মার্ডি জানান, আমরা করোনার কারনে ঘর থেকে বের হতে পারছিনা। আমরা গরীব মানুষ। দিন আনি দিন খাই। কাজ না করলে, না খেয়ে থাকতে হয়। ত্রান না পেয়ে বাধ্য হয়েছি এখানে আসতে হয়েছে। আমাদের জন প্রতিনিধিরা মুখ মুখ চিনে চিনে কিছু ত্রান সামগ্রি দিলেও আমাদেরকে ত্রান সামগ্রি প্রদান করা হয়নি।

মহাসড়ক অবরোধের সংবাদ পেয়ে, বীরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আব্দুল মতিন প্রধান এর নির্দ্দেশে দুপুরে এসআই আলন পুলিশের একটি টিম নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে শৃক্ষলা বজায় রাখার চেষ্টা করে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো.ইয়মিন হোসেন জানান, বীরগঞ্জ পৌর এলাকার ত্রাণ দেওয়ার দায়িত্ব পৌর মেয়রের। আমি তাদের সাথে কথা বলেছি। ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর অসহায় দরিদ্র মানুষের যারা এখনো ত্রান পাইনি তারা যাতে দ্রæত ত্রান পায় সেই ব্যবস্থা আমি করব।

পরে বীরগঞ্জ পৌর মেয়র ও পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি মোশারফ হোসেন বাবুল ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে বিকালে পৌর মেয়র মোশারফ হোসেন বাবুল ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো.ইয়মিন হোসেন উক্ত এলাকায় গিয়ে ত্রান সামগ্রি বিতরন করে বলে জানা গেছে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*