দিনাজপুরে এতিম মেয়ে হ্যাপীর বিয়ে দিলেন ওস্তাদ সাইফুল ইসলাম

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

জিন্নাত হোসেন, দিনাজপুর থেকে : দিনাজপুর শহরের নতুনপাড়া মহল্লা জুড়ে বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ। উৎসবের কারণ একটি এতিম মেয়ের বিয়ে। এলাকাবাসীর মুখে মুখে সেই বিয়ের কথা। এই বিয়ের আয়োজন যার জন্য সে হলো নতুন পাড়া মহল্লার বাবা-মা হারা এক মেয়ে ইভা আকতার হ্যাপী। করোনা সংক্রমণের কারণে আর দশটি বিয়ের মতো জাঁকজমকপূর্ণ জনসমাগম ছিল না এই বিয়েতে। তারপরও আনন্দের কোন কমতি ছিল না আত্মীয়-স্বজন ও প্রতিবেশীদের মাঝে। বিয়ের অনুষ্ঠানে পুলিশের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিকসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ এসেছিলেন।
১৯ জুন শুক্রবার দিনাজপুর শহরের ৬নং ওয়ার্ডের নতুনপাড়া মহল্লার মৃত হাবিব ও মৃত ইয়াসমিন এর কন্যা ইভা আকতার হ্যাপীর সাথে দিনাজপুর সদর উপজেলার ৬নং আউলিয়াপুর ইউনিয়নের মো. হামিদুর রহমান-এর পুত্র মো. আল মামুনের বিবাহ অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়। বিয়ের স্বর্ণালংকারসহ যাবতীয় খরচ বহন করেন শহরের ঈদগাহ্বস্তি একতা অটো মোবাইল ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কশপ এর স্বত্বাধিকারী আলহাজ্ব ওস্তাদ মো. সাইফুল ইসলাম।
করোনা সংক্রমণের কারণে নতুনপাড়া মহল্লায় কনে ইভা আকতার হ্যাপীর বাসায় মেয়ের পক্ষের আত্মীয়-স্বজনকে স্বল্প পরিসরে পর্যায়ক্রমে খাওয়া-দাওয়ার ব্যবস্থা ও ছেলে পক্ষ এবং আমন্ত্রিত অতিথিদের শহরের একটি চাইনিজ রেস্তোরায় স্বল্প পরিসরে দুপুর ১২ টা থেকে ৪ টা পর্যন্ত পর্যায়ক্রমে খাওয়া-দাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়।
আলহাজ্ব ওস্তাদ সাইফুল ইসলাম বলেন, যেহেতু হ্যাপীর পিতা-মাতা কেউ নেউ, আমি তার অভিভাবক হয়ে তাকে বিয়ে দিয়ে তার পিতা-মাতার দায়িত্ব পালন করলাম। উদ্দেশ্য একটাই হ্যাপীর যাতে মনে না হয় বাবা-মা নেই বলে তার বিয়েটা যেন তেনভাবে হয়েছে। তাই আমি প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষকে আমন্ত্রণ করেছি এ বিয়েতে।
আমন্ত্রিত অতিথি দিনাজপুর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. ইমদাদ সরকার এবং সাবেক সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো. লোকমান হাকিম বলেন, একজন বাবা-মা হারা এতিম মেয়েকে বিয়ে দিয়ে আলহাজ্ব ওস্তাদ সাইফুল ইসলাম একটি মহৎ কাজ করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন। যা এটি স্মরণীয় হয়ে থাকবে দিনাজপুরবাসীর কাছে। ##

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*