দিনাজপুরে ভূয়া জামিননামায় আসামীর জামিন লাভের ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মোঃ ইউসুফ আলী, দিনাজপুর থেকে :  টাকার বিনিময়ে অবৈধ উপায়ে একজন আসামীর ভূয়া জামিন লাভের ঘটনায় দিনাজপুরে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। এ নিয়ে দিনাজপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালতের আইনজীবী এ্যাড. সাজ্জাদ হোসেন চৌধুরীর লিখিত অভিযোগ ব্যাপক চাঞ্চল্যের জন্ম দিয়েছে। দিনাজপুর আদালতের জিআরও (সদর) সিরাজ উৎকোচ গ্রহণের মাধ্যমে জনৈক আইনজীবীর সহায়তায় দীর্ঘদিন ধরে এমন অবৈধ কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন বলেও জানা যায়। এ বিষয়ে আশু প্রতিকার চেয়ে ২৮ জুন সোমবার এ্যাড. সাজ্জাদের করা আবেদন গ্রহণ করেছেন দিনাজপুর আমলী আদালত-১ এর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ ইসমাইল হোসাইন।
অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, দিনাজপুর শহরের উত্তর বালুবাড়ী এলাকার মৃত নুরুল ইসলামের পুত্র মোঃ মাসুদ রানা নয়নের দায়েরকৃত একটি মামলার জামিন নিয়েই শুরু হয় ঘটনা। বৈশ্বিক মহামারী করোনা পরিস্থিতিতে সাময়িকভাবে আসামী আত্মসমর্পনের সুযোগ বন্ধ রাখা হয়েছে। ফলে এ মামলার আসামীরাও সে সুযোগ পাননি। কিন্তু হঠাৎ দু’জন আসামীকে পুলিশ গ্রেফতার করে আদালতে সমর্পন করে। তাদের জামিন শুনানী অন্তে তাদের জামিন আদালত মঞ্জুর করে। আর শুরু হয়ে যায় তেলেসমাতি কারবার। টাকার কাছে বিক্রি হয়ে যায় সদর জিআরও সিরাজ। তিনি জামিন হওয়া ওই ২ আসামীর সাথে ৩ নং আসামীর নাম যুক্ত করে জামিননামা প্রকাশ করেন। অথচ ৩নং আসামী গ্রেফতারও হলেন না, জামিন আবেদনও করলেন না। এমন আশ্চার্যজনক ও চাঞ্চল্যকর খবর জানাজানি হলে ৩নং আসামীর নাম কর্তন করে পুনরায় জামিননামা প্রকাশ করা হয়। এ ঘটনায় দিনাজপুরের বিচারাঙ্গণসহ সর্বত্র চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। সকলের মুখে মুখে এ বিষয়ে এখন চলছে আলোচনা-সমালোচনার ঝড়। তবে এ ব্যাপারে একটি পৃথক মামলা দায়ের হতে পারে বলে জানা গেছে।
এ ব্যাপারে দিনাজপুর আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক হাজী মোঃ সাইফুল ইসলাম এ্যাড. বলেন, এ ঘটনাটি একটি ন্যাক্কারজনক অধ্যায়। দিনাজপুরের বিচারাঙ্গণকে কুলষিত করার ক্ষেত্রে দোষীদের বিরূদ্ধে আইনানুগ ব্যাবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি আমি জোর আহবান জানাচ্ছি।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*