দিনাজপুর শহরের ৪ টি , বিরামপুরের চাঁদপুর সহ বিভিন্ন উপজেলার ১১ টি এলাকা রেডজোন

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

স্টাফ রিপোর্টার : করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় দিনাজপুর শহরের ৪ টি এলাকাসহ জেলার বিভিন্ন উপজেলার ১১ টি এলাকা রেডজোন ঘোষণা করতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরকে পত্র দিয়েছে জেলা করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধ কমিটি।
কমিটির আহব্বায়ক দিনাজপুর জেলা প্রশাসক মোঃ মাহবুবুল আলম এবং সদস্য সচিব জেলা সিভিল সার্জন ডাক্তার মোঃ আব্দুল কুদ্দুস স্বাক্ষরিত ওই পত্র ইতোমধ্যে ঢাকা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে পৌছেছে।
করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে দিনাজপুর শহরের ৪ টি এলাকাসহ জেলার যে ১১ টি এলাকাকে ঝুকিপ‚র্ণ চিহ্নত করে রেডজোন ঘোষণার প্রস্তাবনা দেওয়া হয়েছে।
এলাকাগুলো হলো শহরের প্রাণকেন্দ্র ষষ্টিতলা, হাউজিং মোড়, রামনগর এবং ৭ নং উপশহর।
এছাড়াও বিভিন্ন উপজেলার যে ১১ টি এলাকা রেডজোন ঘোষণার প্রস্তাবনা রয়েছে সেগুলী হলো- বিরামপুর উপজেলার চাঁদপুর, নবাবগঞ্জ উপজেলার গোলাপগঞ্জ ইউনিয়নের পশ্চিম পলাশবাড়ী, বিরল উপজেলার মাধববাটী, বোচাগঞ্জ উপজেলার শহীদ পাড়া, খানসামা উপজেলার ৪ নং খামারপাড়া ইউনিয়নের ভান্ডারদহ, চিরিরবন্দর উপজেলার ৪ নং ইউসবপুর ইউনিয়নের উত্তর সুখদেবপুর, পার্বতীপুর উপজেলার ৩ নং রামনগর ইউনিয়নের কাজীপাড়া।
দিনাজপুর করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধ কমিটি’র সদস্য সচিব এবং জেলা সিভিল সার্জন ডা মো আব্দুল কুদ্দুস জানিয়েছেন, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ দেশের অন্যান্য ঝুকিপ‚র্ণ এলাকাগুলোর পাশাপাশি আমাদের দিনাজপুর জেলার ১১ টি ঝুকিপূর্ণ এলাকা রেডজোন ঘোষণা করে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দিবে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। তারপর যা যা করণীয় তা আমারা পালন করবো।
একই সাথে ১১টি এলাকা রেড জোনের পাশাপাশি আরও ৯ টি এলাকা ইয়লো জোন ঘোষণা করতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে পত্র দেওয়া হয়েছে। এই এলাকাগুলোও প্রয়োজনে রেডজোন ঘোষণা করা হতে পারে বলেও জানিয়েছেন সিভিল সার্জন ডাক্তার মোঃ আব্দুল কুদ্দুস।
এদিকে জেলা শহরের চিহ্নিত ঝুকিপ‚র্ণ এলাকাগুলোর মধ্যে ষষ্টিতলা এলাকাটি স্থানীয় এলাকাবাসী বৃহস্পতিবার দুপুরে লকডাউন করে দিয়েছে। ফলে শহরের এই প্রাণকেন্দ্রটির ব্যস্ততম এই রাস্তাটি বন্ধ হয়ে যাওয়ায় ফলে মানুষ ও যানবাহন চলাচল নিয়ে চরম দুর্ভোগে পড়েছে জনগন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*