পরিনহন ধর্মঘট করে মানুষকে কষ্ট দেবেন না : ওবায়দুল কাদের

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

পজিটিভ বিডি নিউজ ২৪ ডটকম (গাজীপুর) : আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, জনস্বার্থে সড়ক পরিবহন আইন করা হয়েছে। এখন ধর্মঘট করে মানুষকে কষ্ট দেবেন না।
নতুন সড়ক আইন নিয়ে পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের আন্দোলন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ধর্মঘট করে মানুষকে কষ্ট দেবেন না। সড়ক পরিবহন আইন মেনে চলুন। এ আইন কারও ক্ষতি করবে না। জনস্বার্থে এ আইন করা হয়েছে।’
ওবায়দুল কাদের আজ মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর)  বিকেলে গাজীপুরের শহীদ বরকত স্টেডিয়াম মাঠে আওয়ামী লীগ গাজীপুর জেলা ও মহানগর শাখার প্রতিনিধি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
সড়ক পরিবহণ ও সেতু মন্ত্রী বলেন, এ আইন সড়কের শৃঙ্খলার জন্য, কাউকে শাস্তি দেওয়ার জন্য নয়। শেখ হাসিনা সড়কের আইন করেছেন কাউকে শাস্তি দিতে নয়। আইনের প্রয়োগ বাড়াবাড়ি হবে না। শেখ হাসিনার অ্যাকশন শুরু হয়ে গেছে। দুর্নীতির চক্র, দুর্বৃত্তায়নের চক্র ভেঙে দেয়া পর্যন্ত এই অ্যাকশন চলতেই থাকবে। এ চক্র ভেঙে দিতে হবে।
ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপির আর কোনো ইস্যু নেই। বিএনপির এখন বেলা শেষ। শেষ বেলায় বিএনপির নেতারা ইস্যু খুঁজে বেড়াচ্ছে। একটার পর একটা ইস্যু খুঁজে বেড়াচ্ছে। বিএনপির হাতে আমরা কোনো ইস্যু দেব না।
তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের কমিটিতে খারাপ লোকদের জায়গা হবে না। দল ভারী করার জন্য খারাপ লোকদের কমিটিতে আনবেন না। এই খারাপ লোকেরা বসন্তের কোকিল। বসন্ত আসলে আসবে আবার ক্ষমতা চলে গেলে পাঁচ হাজার ওয়াটের বাতি জ্বালিয়েও তাদের খুঁজে পাওয়া যাবে না।
ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগ সুবিধাবাদীদের দল নয়। আওয়ামী লীগ আদর্শের দল। আমাদের আদর্শ হচ্ছে আমাদের শিকড়। আদর্শের শিকড় হতে বিচ্যুত হলে আওয়ামী লীগ বাঁচবে না।
তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ ততদিন বাঁচবে, যতদিন আমরা বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে আঁকড়ে ধরে রাখতে পারবো। আমরা যতদিন বঙ্গবন্ধুর আদর্শের শিকড়ের সঙ্গে যুক্ত থাকব, ততদিন আওয়ামী লীগ বেঁচে থাকবে। আর বাংলাদেশকে বাঁচাতে হলে আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হবে। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধকে বাঁচাতে হলে আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হবে।
আওয়ামী লীগের সকল নেতাকর্মীকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, কমিটি করতে গিয়ে পকেট কমিটি করবেন না। দুঃসময়ের ত্যাগীদের অগ্রাধিকার দিবেন। অনুপ্রবেশকারী ক্লিন ইমেজের লোক আওয়ামী লীগে অবশ্যই স্বাগত জানাব। কিন্তু দূষিত রক্ত আমাদের দরকার নেই।
গাজীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী এডভোকেট আ ক ম মোজাম্মেল হকের সভাপতিত্ব এবং গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি কর্পোরেশনের মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের সঞ্চালনায় আওয়ামী লীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক ও আব্দুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, উপ-দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়–য়া,কন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আখতারুজ্জামান, আজমত উল্লা খান, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

 

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*