‘বঙ্গবন্ধু, এই জাতি কোনোদিন আপনাকে ভুলবে না’

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

পজিটিভ বিডি নিউজ ২৪ ডটকম : আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, পৃথিবীতে অনেক নেতা আছে, অনেক মানুষ আছে, যাদের মৃত্যু হয় না জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু মৃত্যুবরণ করেন নাই, তিনি আছেন এবং চিরদিন থাকবেন

মঙ্গলবার (১০ নভেম্বর) সন্ধ্যায় স্পিকার . শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদ অধিবেশনে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বিশেষ অধিবেশনে বঙ্গবন্ধুর ওপর আনিত প্রস্তাব সাধারণের আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি একথা বলেন

তিনি বলেন, ১৯৬৯ সালের যেদিন আমরা বঙ্গবন্ধুকে গণসংবর্ধনা দিয়েছিলাম সেদিন বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন রক্ত দিয়ে, জীবন দিয়ে তোমরা আমাকে কারাগার থেকে মুক্ত করেছো, যদি কোনোদিন পারি নিজের রক্ত দিয়ে সেই রক্তের ঋণ শোধ করে দিয়ে যাবো। তিনি একাই রক্ত দেননি সপরিবারে রক্ত দিয়ে বাঙালি জাতির রক্তের ঋণ শোধ করে গেছেন। সুতরাং জন্মশতবার্ষিকীতে বলতে চাইজাতির পিতা, এই জাতি কোনোদিন আপনাকে ভুলবে না।
তোফায়েল আহমেদ বলেন, বঙ্গবন্ধু তার বক্তৃতায় বলেছিলেন দফা নিয়ে অনেকের কাছে গিয়েছি কেউ সমর্থন করে নাই। তারপর কবিগুরুর কবিতা দিয়ে শুরু করেনযদি তোর ডাক শুনে কেউ না আসে তবে একলা চলরে একলা চলরে’, এইটা বলে তিনি বক্তৃতা শুরু করেন। বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন আওয়ামী লীগ কর্মীর দল, আওয়ামী লীগ কোনো নেতার দল না। আমরা কর্মীরা যদি ঐক্যবদ্ধ থাকি একদিন দফা বাস্তবায়ন করব। কেউ আমার চলার পথে বাধা হতে পারবে না। তিনি দফা দিয়ে ৩৫ দিনে ৩২টি জনসভা করেছিলেন এবং বার গ্রেফতার হয়েছিলেন

তিনি বলেন, কারাগারে থেকে বঙ্গবন্ধু বলেছিলেনওরা আমাদের ফাঁসি দিতে পারবে না, আমাদের বিচার শুরু হবে বাংলার মানুষ গর্জে উঠবে, জেগেউঠবে, একদিন আমাকে মুক্তি দিবে। এই দেশে একটি নির্বাচন হবে সেই নির্বাচনে আমি বিজয়ী হব, ওরা আমাদের ক্ষমতা দেবে না, সেদিনই পাকিস্তানের কবর রচিত হবে।জেলের মধ্যে একজন মানুষ বন্দী থেকে কিভাবে কথাগুলো বলে গেলেন বলে আবেগ আপ্লুত হন তোফায়েল আহমেদ

বঙ্গবন্ধু এমন একজন নেতা যিনি তার জীবনের যৌবন কাটিয়েছেন পাকিস্তানের কারাগারে, ফাঁসির মঞ্চে দাঁড়িয়ে মৃত্যুকে আলিঙ্গন করেছেন সেই মহান নেতাকে বাঙালি জাতির পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞ চিত্তে বঙ্গবন্ধু উপাধিতে ভূষিত করেছিলাম। বঙ্গবন্ধু বহুবার বলেছেন আমি প্রধানমন্ত্রী হওয়ার জন্য আসিনি, আমি এসেছি বাংলার মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য। বঙ্গবন্ধু সোহরাওয়ার্দীতে বলেছিলেন আমি প্রধানমন্ত্রীত্ব চাই না, তিনি বহুদিন প্রধানমন্ত্রীত্ব চাননি

তোফায়েল আহমেদ বলেন, বাংলা ভাষার প্রতি বঙ্গবন্ধুর যে মমত্ববোধ। সেটা তার অনেক বক্তৃতায় বোঝা গেছে। এই পৃথিবীতে অনেক নেতা আসবে, কিন্তু জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর মতো নেতা আসবে না। তিনি ছোটকে বড় করতেন। ইউনিয়নের নেতাকে থানার নেতা, থানার নেতাকে জেলার নেতা, জেলার নেতাকে জাতীয় নেতা করেছেন। আমাদের জাতীয় চার নেতা জেলার নেতা ছিলেন, তাদের জাতীয় নেতা করেন তিনি। সমুদ্রের গভীরতা নিরুপণ করতে পারবেন, মাপতে পারবেন কিন্তু বঙ্গবন্ধুর বাংলার মানুষের প্রতি ভালোবাসার গভীরতা আপনি মাপতে পারবেন না

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*