বিরামপুরের কৃতি সন্তান যুগ্মসচিব হুমায়ুন কবীরের মাধ্যমে নাভানার সৌজন্যে দুটো অক্সিজেন কনসেন্ট্রেটর ও ৫পি পালস অক্সিমিটার পেল বিরামপুর

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

স্টাফ রিপোর্টার : পরিবেশ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক ও যুগ্মসচিব  বিরামপুরের কৃতি সন্তান মো. হুমায়ুন কবীর দিনাজপুরের বিরামপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে দুটো অক্সিজেন কনসেন্ট্রেটর ও ৫পি পালস অক্সিমিটার নাভানার সৌজন্যে উপহার প্রাপ্ত হয়ে বিতরনের জন্য জেলা প্রসাশক মাহমুদুল আলমের মাধ্যমে বিরামপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার পরিমল কুমার সরকারের নিকট প্রেরন করেন।

১০ জুলাই সোমবার দুপুরে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডা. মো. সোলায়মান হোসেন মেহেদীর হাতে কনসেনট্রেটরগুলো হস্তান্তর করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার পরিমল কুমার সরকার।

এ সময় উপজেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী ও উপজেলা অফিসার্স ক্লাবের সাধারন সম্পাদক আ: লতিফ, উপজেলা একাডেমিক সুপার ভাইজার মো. আব্দুস সালাম, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার ডা. মোছা. সিফাত আরা,অনলাইন গনমাধ্যম পজিটিভ বিডি নিউজ ২৪ ডটকমের সম্পাদক মোরশেদ মানিক, প্রিন্ট, অনলাইন ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার প্রতিনিধিগন  উপস্থিত ছিলেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার বলেন, বিরামপুর উপজেলার করোনায় আক্রান্ত রোগীদের উন্নত চিকিৎসার জন্য জেলা প্রশাসক মাহমুদুল আলম মহোদয় পত্রযোগে নাভানা গ্রুপের চেয়ারম্যান মহোদয়ের সাথে যোগাযোগ করেন। সে সাথে বিরামপুর উপজেলার কৃতি সন্তান পরিবেশ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক ও যুগ্মসচিব মো. হুমায়ুন কবীর স্যার ব্যক্তিগতভাবে যোগাযোগ করে নাভানা গ্রুপের সৌজন্যে দুটো অক্সিজেন কনসেনট্রেটর ও ৫পি পালস অক্সিমিটারে উপহার হিসেবে গ্রহন করে দ্রুত প্রেরন করেন। ইউএনও উপহার বিতরনের সময় এ মহতকাজে  সহায়তাকারীদ্বয় ও নাভানা গ্রুপকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেনে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডা. মো. সোলায়মান হোসেন মেহেদী বলেন, ২টি অক্সিজেন কনসেনট্রেটর ও ৫পি পালস অক্সিমিটার উপহার পেয়ে আমাদের উপকার হলো। কারণ দিনাজপুর জেলা সদর আমাদের এখান থেকে অনেক দূরে হওয়ায় অনেক সময় জরুরি রোগীর জন্য সমস্যা হয়। এই জন্য যারা উপহার প্রাপ্তিতে সহায়তা করেছেন তাদের সহ নাভানা গ্রুপের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন ডা. মেহেদী।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*