বিরামপুরে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উদযাপন

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আব্দুর রাজ্জাক, বিশেষ প্রতিনিধি– “শেখ হাসিনার বারতা-নারী পুরুষ সমতা”, “করোনাকালে নারী নেতৃত্ব-গড়বে নতুন সমতার বিশ্ব” প্রতিপাদ্য নিয়ে দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়ের নানান আয়োজনের মধ্য দিয়ে ৮ মার্চ সোমবার আন্তর্জাতিক নারী দিবস-২০২১ উদযাপন হয়েছে।

এ উপলক্ষে সকাল ১০ টায় উপজেলা পরিষদ চত্বরে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

পরে বঙ্গবন্ধু চত্বরে উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা রেবেকা সুলতানা এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পরিমল কুমার সরকার।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান মেজবাউল ইসলাম মন্ডল, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান উম্মে কুলসুম বানু, বিরামপুর মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ শিশির কুমার সরকার, উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মিনারা বেগম, মোহনা টিভির প্রতিনিধি আকরাম হোসেন, উপজেলা এনজিও ফোরামের সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক, পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশনের প্রোগ্রাম ম্যানেজার (জেন্ডার) সানজিদা আহমেদ, ডেমোক্রেসি ওয়াচের প্রতিনিধি আরেফিনা আক্তার, ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ-বিরামপুর এপির প্রোগ্রাম অফিসার চিত্রা চিসিম, চাইল্ড ফোরামের সভাপতি নিশানা পারভীন প্রমুখ।

এছাড়াও উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাগণ, জনপ্রতিনিধি, এনজিও কর্মকর্তাগণ, সাংবাদিকগণ, শিক্ষার্থীবৃন্দ সহ স্থানীয় মহিলা সমিতির নেতৃবৃন্দ ও নারী সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আলোচনাসভায় ইউএনও পরিমল কুমার সরকার বক্তব্যর মধ্যে বলেন, “আমাদের নারীরা এগিয়ে যাবে, এগিয়ে যাচ্ছে। আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যেভাবে দেশ চালাচ্ছেন, তাতে করে আমাদের দেশের নারীদের অবস্থান যে পরিবর্তন হয়েছে উন্নয়নে আর কোন বিকল্প নেই। আমরা চাই আমাদের দেশের নারী সমাজ এগিয়ে যাক। কারণ পুরুষের সমকক্ষ হোক, তারা এই দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাক। নারীরা যদি পেছনে পড়ে থাকে তাহলে এই দেশের উন্নতি থেকে আমরা বাঁধাগ্রস্ত হবো। নারী হয়ে নারীদের সহযোগিতা করতে হবে। আমাদের দেশ নারী নেতৃত্ব, পুরুষ নেতৃত্ব আমরা সমতায় এগিয়ে যাই, সুন্দরভাবে এই দেশ পরিচালিত হোক এই আশাবাদ ব্যক্ত করি”।

উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা রেবেকা সুলতানা সমাপনী বক্তব্যর মধ্যে বলেন, “আমি আমার নিজের হাতেই নিলাম তুলে নিজের সকল দায়। তোমার আমার জীবন থেকে সরাও সকল ত্রাস। এবার তুমি মুখোশ খোলো। আমি বলিনি পুরুষের জন্য, কারও জীবনে কেউ জীবন সঙ্গী হওয়ার সুবাদে সে নারী হোক বা পুরুষ হোক ত্রাস চালাবেন না। মনে রাখবেন আজ যে আপনি ত্রাস চালাচ্ছেন সে হোক স্ত্রী বা হোক স্বামী, আগামীকাল পরশু তরশু, সেই ত্রাস কোন না কোন ভাবে সেই ত্রাস আপনাকেও ভোগ করতে হবে, ফেইস করতে হবে- এটাই বাস্তবতা”।

আলোচনাসভাটি সঞ্চালনা করেন শিক্ষক ও লেখিকা সেতারা কবির সেতু। আলোচনাসভার পর দুইজন নারীকে আত্মকর্মসংস্থানের লক্ষ্যে মেহেক নারী উন্নয়ন সংস্থার সদস্য বিলকিস বেগম ও নাসরিন আক্তারকে স্বল্প সুদে ১৫ হাজার টাকা করে ক্ষুদ্র ঋণ হিসেবে চেক প্রদান করার পর নারী দিবসের তাৎপর্য তুলে ধরতে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে দিবসটির সমাপ্তি ঘটে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*