বিরামপুরে “পুলিশ হবে জনতার” সফল বাস্তবায়ন : সরাসরি রুমে ঢুকুন। ওসি-কে স্যার বলার দরকার নাই”- মনিরুজ্জামান

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

স্টাফ রিপোর্টার:  ”এটা একজন গণ কর্মচারীর অফিস কক্ষ, যে কোনো প্রয়োজনে এই অফিস কক্ষে ঢুকতে অনুমতির প্রয়োজন নাই” সরাসরি রুমে ঢুকুন। ওসি-কে স্যার বলার দরকার নাই”। এভাবেই অনুরোধ জানিয়েছেন প্রকাশ্য ফেস্টুন টাঙ্গিয়ে বিরামপুর থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনিরুজ্জামান।

ওসি মনিরুজ্জামান জানান, বর্ষের অঙ্গীকার, পুলিশ হবে জনতার”। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও আমাদের আইজিপি মহোদয় চাচ্ছেন পুলিশ আরও জনবান্ধব হোক। আমি খেয়াল করেছি মানুষ ওসির রুমে ঢুকতে ভয় পায়। অনেক সময় অনুমতির জন্য ঘোরাফেরা করে। এতে জনগণের সঙ্গে একটা দূরত্ব থেকে যায়। সহজ সরল অনেকেই ভয় দূর করতে মধ্যস্বত্বভোগিদের সাথে নিয়ে এসে ক্ষতির সম্মুক্ষিণ হন। ওসি মনিরুজ্জামান বলেন-  আমি প্রজাতন্ত্রের কর্মচারি। মানুষ আমাকে তাদের একজন ভাববে এটাই আমি চাই। তাই রুমের বাইরে ওই লেখা টানিয়েছি।”

ওসি মনিরুজ্জামানের অভয় বাণীর কারনে সাধারন জনগন সরাসরি তার সাথে যোগাযোগ করে অভিযোগ জানাচ্ছেন এবং ওসি মনিরুজ্জামানের নির্দেশে কুইক রেসপন্স টিম ঘটনার সত্যতা যাচাই করে দ্রুত আইনি সহায়তা দিচ্ছেন। থানা পুলিশের এমন মহতী উদ্যোগ প্রশংসীন হয়েছে বিরামপুরবাসীদের কাছে। তবে এই মহতী উদ্যোগের কারনে দালালরা হয়েছে কর্মহীন !

প্রসঙ্গ, দিনাজপুরের এসপি মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেনের নির্দেশনায় বিরামপুর সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মিথুন সরকারের তদারকিতে , বিরামপুর থানার অফিসার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনিরুজ্জামান / ওসি (তদন্ত) মতিয়ার রহমানের নেতৃত্বে অফিসার ও ফোর্স জনবান্ধব পুলিশিং কর্মকান্ডে নিজেদের আন্তরিক ভাবে নিয়োজিত রেখে “পুলিশ হবে জনতার”  এমন মহতী প্রয়াস অব্যাহত রেখেছেন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*