বিরামপুরে ‘মানবতার ঝুড়ি’র সাথে ইউএনও, ওসির একাত্মতা

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আব্দুর রাজ্জাক, বিশেষ প্রতিনিধি-  “মানবতার ঝুড়ি” এক বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করল। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সীমান্ত এলাকায় বিনাইল গ্রামের একদল তরুণ স্বেচ্ছাসেবী করোনা ভাইরাসের কারণে ক্ষতিগ্রস্তদের ২ মাস ধরে প্রায় দুই হাজার পরিবারকে খাদ্য সহায়তা এবং চিকিৎসা সেবা দিয়ে বিনাইল ইউনিয়নে এক বিরল দৃষ্টান্ত স্থাপন করল।

তারই ধারাবাহিকতায় ১৩ মে বুধবার  দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং থানার ওসি তাদের সঙ্গে সহমত এবং একাত্মতা প্রকাশ করেছেন এবং বিনাইল হাইস্কুলে বিনাইল ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রাম থেকে আসা প্রায় ২০০ টি পরিবারকে খাদ্যদ্রব্য এবং ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ করেছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ তৌহিদুর রহমান বলেন, সরকারের পাশাপাশি “মানবতার ঝুড়ি” র স্বেচ্ছাসেবীরা খাদ্য দ্রব্য সাহায়তা এবং চিকিৎসা সেবা দিয়ে সমস্ত বিনাইল ইউনিয়নে করণায় ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের সাহায্য করে যাচ্ছে এটা খুবই বিরল।

বিরামপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি)   মনিরুজ্জামান বলেন, একদল স্বেচ্ছাসেবী এভাবে একটি ইউনিয়নে সমস্ত ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়ানো এটি একটি বিরল দৃষ্টান্ত, যা এর আগে কখনোই বিরামপুর থানায় এর আগে দেখেন নাই ।

মানবতার ঝুড়ি মনে করে যে, এই বিনাইল ইউনিয়নের সমস্ত করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের তারা সহযোগিতা করেছে। মানবতার ঝুড়ির এক স্বেচ্ছাসেবী বলেন, বিনাইল ইউনিয়নে যদি কোন অভুক্ত ব্যক্তি থাকে তাদেরকে ফোন দিলেই তারা ৩ ঘণ্টার মধ্যেই তাদের বাসায় খাবার পৌঁছে দিচ্ছে ফোন নাম্বার ০১৭৪০ ৫৭১২৮৪।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*