বিরামপুরে ৩৪২ বস্তা সরকারি চালসহ ট্রাক্টর জব্দ ; আটক-১

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

স্টাফ রিপোর্টার : ৩৪২ বস্তা সরকারি চাল ট্রাক্টরে করে পাচারের সময় ট্রাক্টরটি সহ চালগুলো জব্দ করেছে দিনাজপুরের বিরামপুর উপজেলা প্রসাশন। এ সময় চালগুলোর মালিক মো. দবিরুল ইসলাম নামের এক ব্যবসায়ীকে আটক করে তাঁর নামে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা দেওয়া হয়েছে। আজ ৩০ জুলাই বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে ব্যবসায়ীর দবিরুল ইসলামকে দিনাজপুর জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়।

বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে শহরের কলাবাগান এলাকা থেকে ট্রাক্টরটি সহ চালগুলো জব্দ করেন বিরামপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মুহসিয়া তাবাসসুম। আটক দবিরুল ইসলাম নবাবগঞ্জ উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়নের ইয়াকুব আলীর ছেলে। বিরামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মনিরুজ্জামান মনির কালের কণ্ঠকে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ২৯ জুলাই বুধবার রাতে বিরামপুর শহরের মহিলা কলেজ মাঠ এলাকা দিয়ে নবাবগঞ্জ উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়নের মো. দবিরুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তি ৩৪২ বস্তা চাল ট্রাক্টরে  করে পাচার করে নিয়ে যাচ্ছিলেন। ট্রাক্টরটি কলাবাগান এলাকায় মহাসড়কে ওপরে ওঠার সময় সামনের চাকা বিকল হয়ে  চালসহ রাস্তার পাশে উল্টে যায়। পরে স্থানীয়রা চালের বস্তার গায়ে সরকারি খাদ্যগুদামের লোগো দেখে স্থানীয় প্রশাসনকে অবগত করলে উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) এসে ট্রাক্টরটি সহ চালগুলো জব্দ করেন। এ সময় দবিরুল ইসলাম চালগুলো নিজের দাবি করে বিরামপুর মোস্তফা অটো রাইস মিলে প্রক্রিয়াজাত করে সরকারি খাদ্যগুদাম দাউদপুরে জমা দেওয়া হবে বলে জানান। সহকারী কমিশনার তাঁকে চালগুলোর বৈধ কাগজপত্র দেখাতে বললে তিনি অপারগতা প্রকাশ করেন।

উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোছা. মুহসিয়া তাবাসসুম বলেন, ট্রাক্টর উল্টে চালের বস্তায় সরকারি লোগো ও খাদ্য অধিদপ্তরের লেখা দেখে স্থানীয়দের খবরে সেখানে গিয়ে ট্রাক্টর ভর্তি চাল ও দবিরুল ইসলাম নামের ব্যক্তিকে আটক করা হয়। আটক দবিরুল ইসলাম চালগুলো নিজের দাবি করলে তাঁকে বৈধ কাগজ দেখাতে বলা হলেও তিনি কোনো কাগজ দেখাতে পারেননি।

বিরামপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মনিরুজ্জামান বলেন, আটক ব্যক্তিকে চালগুলোর বৈধ কাগজ দেখাতে বললেও সে কোনো কাগজ দেখাতে পারেনি। ফলে সরকারি খাদ্য গুদামের লোগো ব্যবহার করে অধিক মুনাফার আশায় কালোবাজারি করার অভিযোগে তাকে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা দিয়ে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনার সঙ্গে যদি আরো কেউ জড়িত থাকে, তাহলে তাঁর বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*