বিরামপুর সরকারি কলেজের সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপনে মতবিনিময় সভার আহবান জানিয়েছেন অধ্যক্ষ ফরহাদ

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আব্দুর রাজ্জাক, বিশেষ প্রতিনিধি- উত্তরবঙ্গের স্বনামধন্য বিদ্যাপীঠ ঐতিহ্যবাহী বিরামপুর সরকারি কলেজের সুবর্ণ জয়ন্তী উৎসব-২০২০ উদযাপন উপলক্ষে আগামী ২৯ নভেম্বর ২০১৯ শুক্রবার সকাল ১০ টায় কলেজ অডিটোরিয়ামে মতবিনিময় সভায় প্রাক্তন সকল ব্যাচের শিক্ষার্থীদের উপস্থিত হতে ও সার্বিক সহযোগিতার আহবান জানিয়েছেন অধ্যক্ষ ফরহাদ হোসেন।

ইতিমধ্যে ৩১ অক্টোবর ২০১৯ বৃহস্পতিবার বেলা ৩ টায় কলেজ অডিটোরিয়ামে অধ্যক্ষের নেতৃত্বে কলেজের সকল শিক্ষক, এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ সহ প্রাক্তন বিভিন্ন ব্যাচের শিক্ষার্থীর উপস্থিতিতে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় উপস্থিত প্রত্যেকের মতামত যাচাই করে অধ্যক্ষ মহোদয় সুবর্ণ জয়ন্তী-২০২০ এর কথা জানিয়ে দেন এবং আগামী নভেম্বর মাসের ২৯ তারিখ শুক্রবার সকাল ১০ টায় অনুষ্ঠানটিকে সাফল্যমন্ডিত করার লক্ষ্যে পূনঃমতবিনিময় সভার আয়োজনের সিদ্ধান্ত গৃহিত হয়।

মতবিনিময় সভায় অধ্যক্ষ ফরহাদ হোসেন, অন্যান্য শিক্ষক ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীবৃন্দ তাঁদের বক্তব্যে স্মৃতিবিজড়িত কলেজ জীবনে সহপাঠীদের সঙ্গে কাটানো ছাঁয়া সুনিবিড় সবুজচত্বরের এই কলেজে পুরনো বন্ধুদের প্রত্যাবর্তনে মিলনমেলার সেই অনুষ্ঠানটিকে অনাড়ম্বরপূর্ণ ও জমকালোভাবে উদযাপনের লক্ষ্যে সবার অংশগ্রহণের জন্য প্রাক্তন সকল ব্যাচের শিক্ষার্থীদের আহবান জানান।

কলেজের পটভূমি হিসেবে দিনাজপুর জেলার দক্ষিন অঞ্চলের বিরামপুর, ঘোড়াঘাট, নবাবগঞ্জ, হাকিমপুর উপজেলার অবহেলিত ও দরিদ্র জনগোষ্টির সন্তানদের মাঝে শিক্ষা বিস্তারের উদ্যেশ্যে বিরামপুর ডিগ্রী কলেজ ১লা জুলাই ১৯৬৪ সালে বিরামপুরে অত্র কলেজটি প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৯৬৮ সালের ৩ নভেম্বর বর্তমান স্থানে ভিত্তি প্রস্হর স্থাপন করেন তৎকালিন দিনাজপুর জেলা প্রশাসক জনাব একেএম জাকারিয়া। ১৯৭২ সালে এই কলেজে ডিগ্রী কোর্স চালু হয়। ১৯৯৫ সালে এইচএসসি ব্যবসায় ব্যবস্থাপনা (বিএম) শিক্ষাক্রম চালু হয় এবং ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষ হতে বাংলা ও ব্যবস্থাপনা বিষয়ে অনার্স কোর্স চালু হয়ে অত্র এলাকার গরীব কৃষক ও মধ্যবিত্ত শ্রেণির সন্তান-সন্ততিদের মধ্যে শিক্ষা বিস্তার করে আসছে এবং জাতীয়করণ হয় ৮ আগষ্ট ২০১৮ সালে।

জানা যায়, তৎকালিন এলাকার দানশীল, মহৎপ্রাণ ব্যক্তিবর্গ একনিষ্ঠ ও নিঃস্বার্থভাবে কেউ জমিদান আবার অনেকেই অর্থদান করেন। বলতে গেলে প্রতিষ্ঠালগ্নে দিনাজপুর দক্ষিন অঞ্চলের বিপুল সংখ্যক বিদ্যুৎসায়ী দাতা, সমাজকর্মী, জনপ্রতিনিধি এবং ব্যবসায়ীদের সক্রিয় সহযোগিতার ফসল আজকের এই “ বিরামপুর সরকারি কলেজ ”।

বর্তমান ৫৫ বছর বয়সী অত্র শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হতে অনেক মেধাবী ছাত্র-ছাত্রী বর্তমানে দেশ বিদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিকেল কলেজ, কলেজে অধ্যাপনা, গুরুত্বপূর্ণ সংস্থায়, দেশের সরকারী বেসরকারী হাসপাতালে চিকিৎসক, প্রকৌশলী, সরকারী উচ্চ পদস্থ পদে এবং সকল বাহিনীর গুরুত্বপূর্ণ পদে কর্মরত রয়েছে।

বর্তমানে এই কলেজে ২৭০০ ছাত্র-ছাত্রী রয়েছে।

কলেজে রয়েছে চলমান নানামুখী উন্নয়নমূলক আধুনিক যুগোপযোগী মানসম্মত ডিজিটাল শিক্ষা কার্যক্রম।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*