শান্তিরক্ষী সদস্যরা বাংলাদেশের সাথে অন্যান্য স্বাগতিক দেশের সম্পর্ক জোরদার করেছে : মোমেন

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

পজিটিভ বিডি নিউজ ২৪ ডট কম (ঢাকা): পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, বিভিন্ন দেশে মোতায়েন বাংলাদেশী জাতিসঙ্ঘ শান্তিরক্ষী বাহিনীর সদস্যরা তাদের মাতৃভূমির সাথে ওই সব দেশের কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরদারে অবদান রাখছেন। দক্ষিণ সুদানে সফররত পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘শান্তিরক্ষী বাহিনী আমন্ত্রণকারী দেশগুলোর সাথে আমাদের সম্পর্ক উন্নয়নে আমাদের শান্তিরক্ষী সদস্যরা সহায়তা করছেন।’

শনিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, শুক্রবার দক্ষিণ সুদানের উয়াউ প্রদেশে মোতায়েন বাংলাদেশ কন্টিনজেন্ট (বিএনবিএটিটি ৪) পরিদর্শনকালে একথা বলেন।
জাতিসঙ্ঘ শান্তিরক্ষী মিশনে বাংলাদেশী শান্তিরক্ষী বাহিনীর সদস্যদের অবদানের ভূয়সী প্রশংসা করে মন্ত্রী, শান্তিরক্ষী বাহিনীর কর্মকা-র পাশাপাশি বিভিন্ন কল্যাণমূরক কাজে সম্পৃক্তদেরও প্রসংশা করেন।

এ সময় বাংলাদেশী শান্তিরক্ষী বাহিনীর সদস্যরা পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে জানান, তারা উয়াউ প্রদেশের স্থানীয় জনগণের সহায়তার জন্য চিকিৎসা-সেবা ও পশু চিকিৎসার মতো সামাজিক উন্নয়ন ও কল্যাণমূলক কাজ করেছেন। সফরকালে উয়াউ’র স্থানীয় সরকার ও প্রাদেশিক মন্ত্রীগণ উয়াউ প্রদেমের ইউএনএমআইএসএস কম্পাউন্ডে বাংলাদেশী মন্ত্রীর সাথে দেখা করেন।

এ সময় গভর্নর উয়াউয়ে বাংলাদেশী শান্তিরক্ষী বাহিনীর সদস্যদের বিভিন্ন মানবিক সেবা ও ভূমিকার ভূয়সী প্রশংসা করেন। তিনি শিক্ষা, আইসিটি ও কৃষির মতো বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ও উয়াউ প্রদেশের মধ্যে সহযোগিতা প্রতিষ্ঠার ইচ্ছা প্রকাশ করেন। গভর্নর বাংলাদেশী কন্টিজেন্টে আরো অধিক সংখ্যক নারী সদস্য মোতায়েন করার পরামর্শ দেন।

এ সময় দক্ষিণ সুদানে নিযুক্ত বাংলাদেশী অনাবাসিক রাষ্ট্রদূত ও ইউএনএমআইএসএস উপস্থিত ছিলেন।

ইউএনএমআইএসএস কম্পাউন্ডে পৌঁছানোর পর পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে বাংলাদেশ শান্তিরক্ষী বাহিনীর সদস্যদের একটি চৌকশ দল গার্ড অব অনার প্রদান করে। এ সময় নারী ও পুরুষ উভয় সদস্য তাদের বিভিন্ন কসরত ও দক্ষতা প্রদর্শন করেন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*