হিন্দু উত্তরাধিকার আইন সংশোধন করা এখন সময়ের দাবী : আইনমন্ত্রী

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

পজিটিভ বিডি নিউজ ২৪ ডটকম : আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, হিন্দু উত্তরাধিকার আইন সংশোধন করা এখন সময়ের দাবী। তবে সরকার এটি তাদের উপর চাপিয়ে দেবে না। হিন্দু সম্প্রদায় এগিয়ে এলে সরকার এ বিষয়ে সব ধরনের সহযোগিতা করতে প্রস্তুত আছে।
আজ রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনের সেমিনার হলে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি আয়োজিত মুক্তিযুদ্ধের চেতনার আলোকে আইন সংস্কারের প্রয়োজনীয়তা বিষয়ক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।
আনিসুল হক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের আমলে আমরা অত্যন্ত জোর গলায় নারীর ক্ষমতায়নের কথা বলি। কিন্তু যখন নারীদের উত্তরাধিকারের কথা আসে তখন আমাদের গলার শব্দ স্তিমিত হয়ে যায়। এটা আমরা উত্তরণের চেষ্টা করবো। তিনি বলেন, এদেশের সংখ্যা গরিষ্ঠদের দায়িত্ব হলো সংখ্যালঘুদের অধিকার নিশ্চিত করা। আমরা সে কারণেই কিন্তু হিন্দু উত্তরাধিকার আইনের ব্যাপারে কথা বলি। এটা আমরা বলতাম না, যদি নারীরা বঞ্চিত না হতেন।
তিনি বলেন, বাংলাদেশ একটি ধর্ম নিরেপেক্ষ দেশ। তাই এই দেশ মুসলমানদের জন্য যেমন হিন্দুদের জন্যও ঠিক তেমন। তিনি বলেন, কোন সম্প্রদায়ের জন্য আলাদা আইন করে তাঁদেরকে সংখ্যালঘু হিসেবে পরিচিত করার উদ্দেশ্যে বাংলাদেশ হয়নি।
তিনি বলেন, আমরা এমন একটি সমাজ ব্যবস্থা করতে চাই যেখানে মুসলমান, হিন্দু সবাই সমানভাবে থাকতে পারবে এবং সকলেই বাঙালি এবং বাংলাদেশি হিসেবে পরিচয় দেবে। মুসলমান, হিন্দু এইভাবে পরিচয় করতে আমরা চাই না এবং করতে দেবো না।
মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ফিরে যেতে চায়। বাহাত্তরের মূল সংবিধানে যে চার মূলনীতির কথা বলা আছে সেগুলো সুনিশ্চিত করতে চায়। কারণ এগুলো বাস্তবায়ন না করা পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়া সম্ভব নয়।
বিচারপতি শামসুল হুদার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভায় বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক, অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম, একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি লেখক সাংবাদিক শাহরিয়ার কবির এবং বাংলাদেশ হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রানা দাশ গুপ্ত বক্তৃতা করেন।

 

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*