হিলিতে জানালায় উঁকি মারায় দু’পক্ষের সংঘর্ষ, আহত-৪

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মোসলেম উদ্দিন, বিশেষ প্রতিনিধি : দিনাজপুরের হিলিতে জানালায় উঁকি মারাকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষে চার জন আহত হয়েছে। আহতরা হিলির বড় চেংগ্রামের আরিফুল ইসলাম, তার বাবা আশরাফুল ইসলাম ও তার ছোট ভাই আতিকুল ইসলাম। অপর দিকে একই গ্রামের খাজুরুদ্দিনের ছেলে সোবাহান বাবু।
গত রোববার রাতে হিলির বড় চেংগ্রামের নওনাপাড়ায় এঘটনা ঘটে।

আরিফুল ইসলাম জানান, গত রোবার রাত ১১ টায় হিলি থেকে আমি বাড়ি যাওয়ার সময় প্রতিবেসী খাজুরুদ্দিনের ছেলে বাবু আমার বাড়ির জানালাতে দাঁড়িয়ে আছে এবং উঁকি মেরে ঘরের ভিতর দেখছে। জানালায় সে কি দেখে এবিষয়ে আমি তার নিকট জানতে চাইলে সে উল্টো আমার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। এক পর্যায়ে সে তার হাতে থাকা লাইট দিয়ে আমার মাথায় আঘাত করে। আমি তখন চিৎকার করি এবং বাড়ি থেকে আমার বাবা আর ছোট ভাই ছুটে আসে। পরে বাবুর লোকজন আমাদের উপর আক্রমণ করে। তারা সবাই মিলে আমাদের তিন জনকে মারতে থাকে। আমরা প্রাণের ভয়ে বাড়িতে গিয়ে নিজেদের রক্ষা করি। কিন্তু আমাদের তিন জনের শরীর থেকে প্রচুর রক্ত ঝরতে থাকে। তারা আমাদের বাড়ির চার পাশ ঘিরে রাখে। আমরা কোন ভাবে হাসপাতালে যেতে পারছিলাম না। এমনাবস্থায় পার্শ্ববর্তী বিশাপাড়ার লোকজন এসে আমাদের উদ্ধার করে হাকিমপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

এদিকে প্রতিপক্ষ বাবু জানায়, আরিফুলদের আর আমার বাড়ি পাশাপাশি, মাঝখানে চিপাগোলি। সেদিন রাতে আমি ঐচিপাগোলি দিয়ে আসছিলাম। এমন সময় আরিফুল আমাকে বলে আমার জানালা দিয়ে কি দেখছিস। এমন কথায় আমি তাকে বলি আমি সোজা আসছি। সে কোন কথা না শুণে আমাকে মারধর করতে থাকে। তখন তার বাবা ভাইও এসে আমাকে মেরে ফেলে রেখে বাড়িতে পালিয়ে যায়। আমি মাটিতে পড়ে থাকলে আমার আত্বীয় স্বজন এসে আমাকে উদ্ধার করে হাকিমপুর হাসপাতালে ভর্তি করে।

এবিষয়ে বোয়ালদাড় ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের সভাপতি ছদরুল ইসলাম জানান, বিষয়টি উভয় পক্ষ আমাকে জানিয়েছে। যেহেতু তারা প্রতিবেসী একই স্থানে বসবাস করে। তাই থানায় কোন অভিযোগ করতে দেয়নি। হাসপাতালে উভয় পক্ষ চিকিৎসাধীন আছে। তারা সুস্থ্য হলে স্থানীয় ইউপি সদস্যসহ বসে উভয়ের মধ্যে মিমাংশা করে দিবো।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*