হিলি বন্দরে পেঁয়াজের কেজি ২০ টাকা

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মোসলেম উদ্দিন, বিশেষ প্রতিনিধিঃ এক সপ্তাহের ব্যবধানে দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরে পেঁয়াজের দাম কমেছে কেজিতে ৮ থেকে ১০ টাকা। প্রকার ভেদে ২৮ টাকার পেঁয়াজ এখন কেজিতে ২০ টাকা। ভারত থেকে পেঁয়াজের আমদানি বাড়ায় কমেছে পেঁয়াজ দাম, এমনটিই বলছেন বাজার পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা।

মঙ্গলবার (৩০ মার্চ) বিকেলে হিলি পেঁয়াজ বাজার ঘুরে দেখা গেছে, পবিত্র মাহে রমজান আসার আগেই কমতে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম। এক সপ্তাহ আগে পাইকারি বাজার পেঁয়াজের দাম ছিলো ২৭ থেকে ২৮ টাকা। তা খুচরা বাজারে বিক্রি হয়েছে ৩০ টাকা কেজি দরে। আজ পাইকারি বাজারে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ২০ টাকা। আবার খুচরা বাজারে ব্যবসায়ীরা বিক্রি করছে ২৩ থেকে ২৫ টাকা কেজি দরে।

বাজারে পেঁয়াজ কিনতে আসা একজন সাধারণ ক্রেতা মিজানুর রহমান বলেন, গত সপ্তাহে পেঁয়াজ কিনেছিলাম ৩০ টাকা কেজি দরে। আজ পেঁয়াজের দাম অনেকটাই কম। পাইকারি বাজার থেকে তিন কেজি পেঁয়াজ নিলাম, ২০ টাকা কেজি দরে।

গোলেজান বিবি বলেন, প্রতিবছর  রমজান মাসে পেঁয়াজের দাম অনেক বেশি হয়। আজ দেখচ্ছি, পেঁয়াজের দাম কমে গেছে।  তাই বেশি করে রমজানের উদ্দেশ্যে পেঁয়াজ কিনলাম।

হিলি বাজারে খুচরা পেঁয়াজ ব্যবসায়ী আবদুল লতিফ বলেন, বর্তমান পেঁয়াজের দাম কমে গেছে। এক সপ্তাহ দান অনেকটা বেশি ছিলো। এখন আমরা ২০ টাকা দরে পাইকারি ক্রয় করে, তা ২২ থেকে ২৪ টাকা দরে খুচরা বিক্রি করছি। হঠাৎ পেঁয়াজের দাম কমে যাওয়ায় সাধারণ মানুষের অনেক সুবিধা হচ্ছে।

হিলি বাজারে পাইকারি ব্যবসায়ী রাশেদুল ইসলাম বলেন,  ভারত থেকে পেঁয়াজের আমদানির বৃদ্ধি পেয়েছে। তাই বাজারে পেঁয়াজের দামও কমেছে। আমরা পেঁয়াজ আমদানি কারকদের নিকট হতে ১৮ থেকে ১৯ টাকা পাইকারি নিয়ে, তা খুচরা ব্যবসায়ীদের কাছে ২০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করছি। আর কয়েক দিন পর রমজান মাস আসছে। আশা করছি, ভারত থেকে পেঁয়াজের আমদানির আরও বৃদ্ধি পেলে, হইতো দাম আরও কমতে পারে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*